তৃতীয়বারের মতো এমপি নির্বাচিত


Md Firoj প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ৮, ২০২৪, ১:১১ অপরাহ্ন /
তৃতীয়বারের মতো এমপি নির্বাচিত

জনতার শুভেচ্ছায় সিক্ত কাজী নাবিল

যশোর প্রতিনিধি

তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য (এমপি) নির্বাচিত হয়ে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন যশোর-৩ (সদর) আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বাফুফে সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ। সোমবার বেলা ১২টায় যশোর শহরের কাজীপাড়ায় কাজী শাহেদ সেন্টারে দলীয় নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে বিজয়ী হওয়া কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘এবারের নির্বাচনকে ঘিরে আরও বেশি মানুষের সঙ্গে সম্পৃক্ততা হয়েছে নানা প্রক্রিয়ায়। জননেত্রী শেখ হাসিনা জনগণের জন্য অনেক কাজ করেছেন। আমরা তার সঙ্গে থেকে এলাকার জন্য কাজ করেছি। দেশের মানুষের জননেত্রী শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রয়েছে। মানুষের কাছে গিয়েছি, তাদের কাছে ভোট চেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর সাফল্যের কথা তুলে ধরেছি, এলাকার উন্নয়নে কাজ করেছি। সাধারণ মানুষের অভিব্যক্তি বুঝেছি, তাদের অনেক সাপোর্টও পেয়েছি। সে কারণে আবার নতুন করে আমাদের পথচলা শুরু হলো। আশা করি, আগামী পাঁচ বছর উন্নয়নের কাজ অব্যাহত রাখতে পারবো।’

তিনি বলেন, ‘এই বিজয় জননেত্রী শেখ হাসিনার বিজয়। টানা চতুর্থবারের মতো তাকে দেশের মানুষ শেখ হাসিনাকে সরকার গঠনে রায় দিয়েছেন।’

যশোরের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখার প্রসঙ্গে কাজী নাবিল বলেন, ‘যশোরের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়ন, ব্যবসাবান্ধব যশোর গঠনে অবকাঠামো উন্নয়ন, সড়ক ও রেল যোগাযোগের যে কাজগুলো চলছে তা সম্পন্ন করা হবে। ক্রীড়াঙ্গন ও শিল্প-সংস্কৃতির জন্য প্রযোজ্য কাজগুলো সম্পাদন, ঝুলে থাকা ৫শ’ শয্যার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল নির্মাণ সম্পন্নের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করার প্রচেষ্টা থাকবে।’

যশোর শহরে ভৈরব নদের উপরে দড়াটানা সেতুর সংস্কার এবং আশপাশের অবৈধ স্থাপনা সরানোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কাজ করতে গিয়ে কিছুটা প্রতিবন্ধকতা থাকেই।’ ভৈরব নদ খননের কাজকে অর্থবহ করতে যথাযথ ভূমিকা রাখবেন বলে জানান তিনি।

কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘আমি ভোটারদের কাছে ঋণী। তাদের চাহিদামতো উন্নয়নে ও কল্যাণে কাজ করতে চাই। তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। যশোরবাসী আমাকে ভালোবাসা ও স্নেহের বন্ধনে আবদ্ধ করেছেন।’ যশোরের উন্নয়ন জনগণের চাহিদা পূরণে আগামীতে সচেষ্ট থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেন এই সংসদ সদস্য।

উৎসবমুখর পরিবেশে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন হয়েছে উল্লেখ করে কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘যশোর ছয়টি আসনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে। দুটি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নতুন দুজন আওয়ামী লীগ নেতা বিজয়ী হয়েছেন। যে দুজন সংসদ সদস্য পরাজিত হয়েছেন, তাদের জন্য সমবেদনা রইলো। নতুন যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদের সবাইকে সঙ্গে যশোরের উন্নয়নে কাজ করবো।

সোমবার সকাল থেকেই সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের বাসভবন ও কাজী শাহেদ সেন্টারে যশোরের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ফুল নিয়ে সমবেত হন। কাজী নাবিল আহমেদ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় ও কুশলাদি জানতে চান। এ সময় তার সঙ্গে ছোট ভাই বিসিবির পরিচালক কাজী এনাম আহমেদসহ রাজনৈতিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

একে একে কাজী নাবিল আহমেদকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নেতৃবৃন্দ, উপশহর মহিলা কলেজ যশোর, যশোর মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া যশোরের শিক্ষার্থীরা, আমিনা আহমেদ গোপালপুর তালবাড়িয়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, যশোর এস এম সুলতান ফাইন আর্টস কলেজ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ, নওয়াপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, ডাক্তার মোহাম্মদ আবুল হাশেম, ঝাউদিয়া-কারিগরপাড়া এলাকার বাসিন্দারা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।